সেলিম ওসমানের অসাম্প্রদায়িকতার আরেকনিদর্শন পালপাড়া মন্দিরের নির্মান কাজ

94

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ- নারায়ণগঞ্জ-৫ আস‌নের সাংসদ  বীর মু‌ক্তি‌যোদ্ধা একেএম সে‌লিম ওসমান নিজের নির্বাচনী এলাকা হতে নির্বাচিত হবার পর থে‌কেই তার  ব‌্যা‌ক্তিগত তহ‌বিল থে‌কে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজে অনুদান প্রদান ক‌রে ই‌তিম‌ধ্যেই সাধারন মানুষের কা‌ছ থে‌কে দানবীর খ‌্যাতী অর্জন ক‌রে‌ছেন । মস‌জিদ, মাদ্রাসা, স্কুল, ক‌লেজ নির্মানসহ বি‌ভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ করেন তিনি,শুধু মস‌জিদ মাদ্রাসা নয় হিন্দু ধর্মাবলম্বী‌দের জন‌্য ম‌ন্দির, মন্ডপ নির্মান সহ সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয় বড় ধর্মীয় উৎসব দূর্গাপূজায় জেলার বিভিন্ন পূজামন্ডপগু‌লো‌তেও ব‌্যক্তিগত তহ‌বিল থে‌কে বিপুল প‌রিমান অর্থ অনুদান দি‌য়ে  অসাম্প্রদা‌য়িকতার এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন ক‌রে‌ছেন।


তারই ধারাবা‌হিকতায় নতুন পালপাড়া সার্বজনীন পুজা ক‌মি‌টির প্রস্তা‌বিত দুর্গা ম‌ন্দির, কা‌লি মন্দির ও গ‌ণেশ ম‌ন্দিরের নতুন মন্ডপ ও ম‌ন্দিরের পূন নির্মান কাজের জন‌্য ব‌্যা‌ক্তিগত তহ‌বিল থে‌কে ১০ লক্ষ টাকা অনুদান দি‌য়ে অসাম্প্রদয়িকতার আরেক‌টি নিদর্শন স্থাপন ক‌রে‌ছেন দানবীর এই সংসদ সদস‌্য।


মঙ্গলবার (২৩ জুন) নতুন পালপাড়া সার্বজনীন পুজা ক‌মি‌টির প্রস্তা‌বিত দুর্গা ম‌ন্দির, কা‌লি মন্দির ও গ‌ণেশ ম‌ন্দিরের নতুন মন্ডপ ও ম‌ন্দিরের ১ম তলার ছাদ ঢালাইয়ের কাজ শুরু হয়।সে‌লিম ওসমা‌নের দেয়া অনুদা‌নের ওপর ভি‌ত্তি ক‌রে ম‌ন্দির‌টি পূন‌নির্মান কা‌জের উ‌দ্বোধন করা হয়। উ‌দ্বোধ‌নের পর থে‌কেই বেশ দ্রুত গ‌তি‌তে এ‌গি‌য়ে চ‌লে‌ছে ম‌ন্দিরের নির্মান কাজ।
নতুন পালপাড়া সার্বজনীন পুজা ক‌মি‌টির প্রস্তা‌বিত দুর্গা ম‌ন্দির, কা‌লি মন্দির ও গ‌ণেশ ম‌ন্দিরের নতুন মন্ডপ ও ম‌ন্দিরের পূন নির্মাননির্মান কা‌জে সম্ভাব‌্য ব‌্যয় ধরা হ‌য়ে‌ছে ৩০ লক্ষ টাকা। নির্মাণ কা‌জের প্রত‌্যক্ষভা‌বে তদার‌কি কর‌ছেন জানা পূজা মন্ডপ ক‌মি‌টির সাধারণ সম্পাদক রিপন ভাওয়াল এবং এম‌পি সে‌লিম ওসমান প্রদত্ব অনুদানের টাকা ম‌ন্দির নির্মা‌নের কা‌জে সুষ্ঠুভা‌বে বন্টন সহ যাবতীয় বিষ‌য়ে সা‌র্বিক তত্ত্বাবধানে রয়েছেন এফবিবিসিআই পরিচালক প্রবীর কুমার সাহা  ।এছাড়া সার্বিক সহযোগীতা করেছেন জাতীয় পা‌র্টির আহ্বায়ক চেয়ারম্যান আবু জাহের আলী জেলা হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টিজ পরিতোষ কান্তি সাহা, কেন্দ্রীয় পূজা উদযাপন পরিষদের সদস্য বাসুদেব চক্রবর্তী,অমল পোদ্দার, স‌রোজ সাহা,নাসিক ১৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নাজমুল আলম সজল, ১৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শফি উদ্দিন প্রধান, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি দীপক কুমার সাহা,মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অরুণ কুমার দাশ, সাধারণ সম্পাদক উত্তম কুমার সাহা, জেলা হিন্দু সংস্কার সমিতির সভাপতি কমলেশ সাহা, জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ কুমার দাশ, মহানগর হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি লিটন চন্দ্র পাল।


পাল পাড়া সার্বজনীন পূজা পরিষদের সাধারন সম্পাদক রিপন ভাওয়াল  মন্দিরের কাজ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন করতে সকলের সযোগীতা কামনা করে, মন্ডপের ছাদ ঢালাইয়ের কাজ সঠিকভাবে সম্পূর্ণ হওয়ায় মাটি ও মানুষের নেতা বিশিষ্ঠ ব্যবসায়ী দানবীর সংসদ আলহাজ্ব একেএম সেলিম ওসমানের প্রতি কৃতজ্ঞতা পোষন করে বলেন, আমি নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানের এলাকার ভোটার। আমি যেখানেই যাই খুব গর্ব করে বলতে পারি যে আমার এলাকায় আমি সেলিম ওসমানের মতো একজন দানবীর সংসদ সদস্য পেয়েছি। তিনি তার নির্বাচনী আসনের এলাকায় বিশেষ করে বন্দর নগরীতে সরকারী অনুদান সহ ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে এতটাই উন্নয়ন করেছেন যা বাংলাদেশের কোথাও এর নজিড় নেই।বৈষ্যিক মহামারী করোনা ভাইরাসের কারনে দূর্যোগকালীন সময়ে পিসিআর ল্যাব স্থাপন,অসহায়দের মাঝে খাদ্য সহায়তা ও কর্মহীনদের মাঝে নগদ অর্থ বিতরনের মাধ্যমে সাধারন মানুষের মনের মনিকোঠায় জায়গা করে নেন দনবীর সংসদ আলহাজ্ব একেএম সেলিম ওসমান।পাশাপাশি  করোনা ভাইরাসের কারনে কর্মহীন অাসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো সমস্ত জনপ্রতিনিধিদের নতুন পাল পাড়া সার্বজনীন পূজা উদযাপন পরিষদের পক্ষ থেকে সাধারন সম্পাদক রিপন ভাওয়াল ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা পোষন করেন।


তিনি অারো বলেন,বৈষ্যিক মহামারী করোনা ভাইরাসের কারনে মন্ডপের ছাদ ঢালাইয়ের কাজ প্রায় তিন মাস পিছিয়ে যায়,একটু দেরীতে হলেও সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতার আমরা মন্ডপের ছাদ ঢালাইয়ের কাজ শুরু করতে পেরেছি। অালহাজ্ব একেএম সেলিম ওসমান সহ সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন রিপন ভাওয়াল।এছাড়া আসন্ন দূর্গো উৎসবের অাগেই এই পূজামন্ডপের সমস্ত কাজ সম্পূর্ণ করার লক্ষ্যে সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহবান জানান।