ফতুল্লায় বরিশাইল্যা টিপুর দখলে সরকারী রাস্তা

228

আমাদের নারায়ণগঞ্জ ডটকমঃ ডাইংয়ের গরম পানিতে জলসে যাওয়া নুরুল ইসলামের ঘটনার তদন্ত করতে গিয়ে বের হয়ে এলো অর্ধশত বছরের পুরনো সরকারী রাস্তা দখলের ঘটনা। রাস্তাটি টিপুর ব্যাক্তিগত বলে দাবি করলেও ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান খন্দকার লুৎফর রহমান স্বপনের দাবি রাস্তাটি ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের গ্রেজেটভূক্ত সরকারী রাস্তা। ডাইংয়ের বর্জ্য মিশ্রিত পানি সম্পর্কে চেয়ারম্যান বলেন, টিপুর মালিকানাধীন দিপ্তি ডাইংয়ের পানি শুধু রাস্তায়ই নয়, ইউনিয়ন পরিষদের রাস্তাও তলিয়ে যায়।

ভূক্তভোগীরা জানায়, টিপু সরকারী-বেসরকারী ব্যাক্তি মালিকানাধীন ভূমি জবর দখলসহ অর্থ আত্মসাতের পর এবার ফতুল্লা ইউনিয়নের উন্নয়ন প্রকল্পের আওতাধীন দীর্ঘ ৫০বছরের ব্যবহৃত সরকারী রাস্তা দখল করে নিয়েছে অনেক আগেই। এ ঘটনায় একাধিকবার স্থানীয় বাসিন্দারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে বিষয়টি মৌখিক ও লিখিত ভাবে জানালেও তিনি কোন ব্যবস্থা গ্রহন করেনি। তবে চেয়ারম্যান বলছেন, আমি টিপুকে বেশ কয়েকবার মৌখিক ভাবে জনসাধারণের চলাচলের জন্য রাস্তার দখল ছেড়ে দিতে বলেছি। সদ্য বিদায়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকেও বিষয়টি অবগত করেছি। কিন্তু কোন কাজ হয়নি। স্থানীয় বাসিন্দারা জানায়, পোষ্ট অফিস রোডের পাশের জয়নগর ষ্টীল মিল ও সালাসা টেক্সটাইল মিলের মাঝখান দিয়ে বয়ে যাওয়া রাস্তাটি প্রায় অর্ধশত বছরেরও বেশী সময় স্থানীয়রা ব্যবহার করে আসছে। গত বছরের বছরের শুরুর দিকে সরকারী এই রাস্তাটি রাতের অন্ধকারে বন্ধ করে নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কাজে ব্যবহার করে আসছে।

এই রাস্তা দখলের সময় এলাকাবাসী প্রতিবাদ জানালেও বরিশাইল্যা টিপু কারো কথা না শুনে নিজের মতো করে রাস্তা দখলে নিয়ে নেয়। বন্ধ রাস্তা খুলে দেয়ার দাবিতে এলাকাবাসী গত বছরের ৮ জানুয়ারী ইউপি চেয়ারম্যানের বরাবর লিখিত অভিযোগ দেয়। কিন্তু রহস্যজনক কারনে চেয়ারম্যান এর কোন সুরাহা করেনি। এতে করে টিপু আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে। রাস্তা বন্ধের ঘটনায় প্রতিবাদ করায় একই দিনে দেলোয়ার হোসেন দেলুকে বরিশাইল্যা টিপু তার ভাই সাপ্পু, ভাগ্নে রায়হান,রাজিবসহ বেশ কিছু ভাড়াটে সন্ত্রাসী ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়।

এদিকে, ডাইংয়ের গরম পানিতে জলসে যাওয়া পথচারী নুরুল ইসলামের অভিযোেগের ভিত্তিতে ফতুল্লা মডেল থানার এসআই মোফাজ্জল করিম ঘটনাস্থলে গেলে দিপ্তি ডাইংলে মালিক টিপু জানান, রাস্তায় জমে থাকা পানি তার ডাইংয়ের নয়। এছাড়া যে রাস্তাটি দখলের উপযোগ উঠেছে সেটাও তার ব্যাক্তিগত রাস্তা। এ ব্যাপারে ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান খন্দকার লুৎফর রহমান স্বপনের দাবি রাস্তাটি ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের গ্রেজেটভূক্ত সরকারী রাস্তা। টিপু এই রাস্তাটি জোর করে দখল করে রেখেছে। ডাইংয়ের বর্জ্য মিশ্রিত পানি সম্পর্কে চেয়ারম্যান বলেন, টিপুর মালিকানাধীন দিপ্তি ডাইংয়ের পানি শুধু রাস্তায়ই নয়, ইউনিয়ন পরিষদের রাস্তাও তলিয়ে যায়। উল্লেখ্য, বরিশাইল্যা টিপু সাবেক এমপি কবরীর সময়ে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সাংসদ সেলিম ওসমানের ফ্যাক্টরীতে হামলা চালিয়েছিলো বলেও অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া তার বিরুদ্ধে বিএনপি-জামাতকে মদদ দেয়ারও অভিযোগ রয়েছে। সম্প্রতি তিনি আওয়ামী লীগে যোগদান করেন।

SHARE